অভিষেকেই গোল লুকাকুর

৬০তম মিনিটের লুকাকুর সেই গোলটি দলের তৃতীয়। এর আগেই মার্সেলো ব্রোজোভিচ ও স্তেফানো সেনসির গোলে নির্ভার ছিল ইন্টার। আর ৮৪তম মিনিটে আন্তোনিও কান্দ্রেভার গোলে নিশ্চিত হয় ইন্টারের বড় জয়। সান সিরোর ৬৫ হাজার দর্শকের সামনে অমন জয় আত্মবিশ্বাস বাড়াবে ইন্টারের। কোচ কন্তে সবচেয়ে উল্লসিত লুকাকুকে নিয়ে।

ইন্টারের জগতে লুকাকু প্রবেশ করল সম্ভাব্য সেরা উপায়ে। ও জেন্টল জায়ান্ট, হাসিমুখের জায়ান্ট। দলের জন্য প্রচুর পরিশ্রম করেছে। আমি ওর পারফরম্যান্সে খুশি।

লুকাকু

দলের পারফরম্যান্স নিয়ে অবশ্য অত উচ্ছ্বসিত নন কোচ, ‘আমরা শুরু করেছিলাম দারুণভাবে। দলকে যেভাবে আমি খেলাতে চাই, ঠিক সেভাবে। কিন্তু ২-০ গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর ছেলেদের খেলা আমার পছন্দ হয়নি। সবাই যেন কিছুটা আয়েশি হয়ে গিয়েছিল, বল হারাচ্ছিল বারবার।’

খেলোয়াড়দের কাছ থেকে বরাবর সেরাটা চান কন্তে। সেভাবেই ইতালিয়ান লিগের শিরোপা জিতেছেন, ইংলিশ লিগেরও। ইন্টারে এসে জয় দিয়ে সিরি ‘এ’ শুরু করায় খুশি হলেও সামনের ম্যাচগুলোর করণীয় জানিয়ে দিতে ভোলেননি।

আমাদের মানিসক ও শারীরিক—দুই দিক দিয়েই উন্নতি করতে হবে। এ জয়ের পর মধ্যরাত পর্যন্ত উদযাপন করব। এরপর কাল থেকে শুরু করব পরের ম্যাচের প্রতিপক্ষ কালিয়ারিকে নিয়ে ভাবা। ওদের মাঠে গিয়ে খেলাটা মোটেই সহজ হবে না।

লুকাকু

আমাদের মানিসক ও শারীরিক—দুই দিক দিয়েই উন্নতি করতে হবে। এ জয়ের পর মধ্যরাত পর্যন্ত উদযাপন করব। এরপর কাল থেকে শুরু করব পরের ম্যাচের প্রতিপক্ষ কালিয়ারিকে নিয়ে ভাবা। ওদের মাঠে গিয়ে খেলাটা মোটেই সহজ হবে না।

৯ মৌসুম ধরে লিগ শিরোপা জেতে না ইন্টার মিলান। অবশ্য সর্বশেষ আট মৌসুম ধরে জুভেন্টাস ছাড়া ইতালিয়ান সিরি ‘এ’ জিতেছেই বা আর কোন ক্লাব! জুভদের সেই একচ্ছত্র আধিপত্য ভাঙার মিশন নিয়ে এবারের মৌসুম শুরু করেছে ইন্টার। পরশু লেচ্চের বিপক্ষে ৪-০ গোলের বিস্ফোরক জয়ে প্রথম পদক্ষেপটি হলো একেবারে ঠিকঠাক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 − two =

shares