আফগানদের সাথে আক্রমনাত্বক খেলবেনা জেমির শিষ্যরা

বিশ্বকাপ বাছাইয়ে আফগানিস্তানের বিপক্ষে কৌশল কি হবে সেটিই এখন বড় রহস্য?  আক্রমণাত্মক ফুটবলে জয় ছিনিয়ে আনার মতো দুঃস্বাহস কোচ  জেমি ডে দেখাবেন না সেটা বলাই যায়। তাই পুরোনো সেই কাউন্টার অ্যাটাকেই হয়তো প্রতিপক্ষ বধের ছক কষছেন জেমি। যেখানে গোল করার চেয়ে গোল না খাওয়াতেই চোখ থাকবে জামালবাহিনীর,,

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে, আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে বড় ভূমিকা নিতে হবে দলের রক্ষণভাগকে, মনে করেন সহকারি কোচ স্টুয়ার্ট হোয়াটকিস। তার দাবি, দলের সেরা ডিফেন্ডার তপু বর্মণের অভাব কাটাতে প্রস্তুত আছেন দলের অন্য ডিফেন্ডাররা। আর প্রতিপক্ষের দূর্বলতা খুঁজে তা কাজে লাগানোর পরিকল্পনা রক্ষণের অন্যতম ভরসা ইয়াসিন খানের।

আর তাতে দুঃশ্চিন্তার বড় কারণ ইনজুরির কারণে ডিফেন্ডার তপু বর্মনের না থাকা। তবে বিকল্প হিসেবে প্রস্তুত ইয়াসীন-বাদশাদের সমন্বয়ে গড়া রক্ষণভাগ।

আমাদের প্রাথমিক লক্ষ্যটা দলের সবাইকে ফিট করে। ৯০ মিনিট পর্যন্ত ফুটবল খেলতে পারবে এমন ভাবেই দলের ১১ জনকেই তৈরী করছি আমরা। রক্ষণভাগ নিয়ে কিছুটা দুঃশ্চিন্তায় আছি। তবে ইনজুরি কাটিয়ে দলের রক্ষন কতটা উন্নত করতে পারবো, তার জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

স্টুয়ার্ট ওয়াটকিস, সহকারি কোচ, জাতীয় ফুটবল দল

অভিজ্ঞদের সঙ্গে দলে ডাক পেয়েছেন বেশ কিছু তরুণ ডিফেন্ডার। লিগের কারণে তাদের রসায়নটাও বেশ জমাট। তাই দুর্বার চিত্তে আফাগানদের রুখে দিতে চান ইয়াসিন-রায়হানরা।

তাজিকিস্তানের মাটিতে খেলা শেষ দুই ম্যাচে ১০ গোল হজম করেছে বাংলাদেশ। বিপরীতে তাজিকদের মাটিতে এখনো অপরাজেয় আফগানিস্তান। দলটির দুর্বলতা খুঁজে নিজেদের শানিয়ে নিতে ব্যস্ত সময় কাটছে জেমি ডে শিষ্যদের।

আগামী ১০ সেপ্টেম্বর বিশ্বকাপ বাছাইয়ের প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানের হোম ম্যাচ দুশানবেতে খেলবে বাংলাদেশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nine − seven =

shares