পাত্তাই পেলোনা পাকিস্তান

লজ্জার এই হারের দিনে পাকিস্তানের প্রাপ্তি আছে একটি। দলে নেওয়া নিয়ে প্রশ্ন ওঠা মোহাম্মদ আমির ভালো বোলিং করেছেন। তিনি ৬ ওভারে ২৬ রান খরচায় উইন্ডিজের তিন উইকেটই নিজের করে নেন। আর দুর্দান্ত জয় কিংবা উড়ন্ত শুরুর দিনে অস্বস্তি আছে উইন্ডিজ শিবিরে। বিশ্বকাপের আসরে গেইলের মতো তারকা শরীরে ব্যথা নিয়ে মাঠ ছাড়ছেন, দেখে ভালো লাগার কথা না টিম ম্যানেজমেন্টের। এছাড়া রাসেলও ইনজুরির অস্বস্তিতে আছেন। রাসেল এ ম্যাচে নেন দুই উইকেট। উইন্ডিজের হয়ে ওসানে থমাস চারটি এবং জেসন হোল্ডার তিন উইকেট নেন।      

বিশ্বকাপের দ্বিতীয় এই ম্যাচের আগে ক্রিকেট বিশ্লেষক হারশা ভোগলে বলেন, ইংল্যান্ড-দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচের চেয়ে পাকিস্তান-ওয়েস্ট ইন্ডিজের ম্যাচে বেশি নজর তার। যুক্তিতে বলেন, দু’দলই আন্ডারডগ। আবার বিশ্বকাপের স্বপ্ন পুষছে। আনপ্রেডিক্টেবল আবার অতীত ঐহিত্য সমৃদ্ধ। ইংল্যান্ডে বিশ্বকাপ জয়ের সুখ স্মৃতি আছে তাদের। 

তবে ট্রেন্ট ব্রিজে শুক্রবারের ম্যাচ বিজ্ঞাপনেই ফ্লপ! বড় রানের উইকেট ছিল। কিন্তু টস হেরে শুরুতে ব্যাটে নেমে পাকিস্তান করতে পারে মাত্র ১০৫ রান। টপ অর্ডারের দুই ব্যাটসম্যান ফখর জামান এবং বাবর আযম দলের হয়ে সর্বোচ্চ ২২ করে রান করেন। নয়ে ব্যাটিংয়ে নামা ওয়াহব রিয়াজ করেন ১৮ রান। দল ৭৫ থেকে ৮৩ রানের মধ্যে চার উইকেট হারায় ২০১৭ সালে ইংল্যান্ডে চ্যাম্পিয়ন হওয়া দলটি। অল আউট হয় মাত্র ২১.৪ ওভারে।  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eight + 12 =

shares