ফ্রান্স নয় কাতারের দায়িত্ব দেখা যেতে পারে জিদানকে

জিদানকে সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক দিয়ে হলেও কাতার জাতীয় ফুটবল দলের কোচের ভূমিকায় দেখতে চায়  কাতার ফুটবল ফেডারেশন।

ফুটবল বিশ্বকে চমকে দিয়ে হঠাৎ করেই বৃহস্পতিবার ঘটা করে সংবাদ সম্মেলন করে রিয়াল মাদ্রিদ কোচের পদ থেকে অব্যহতি নেন টানা তিনটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ বিজয়ী কোচ জিনেদিন জিদান।

খেলোয়াড়ি জীবনের মত কোচিং ক্যারিয়ারেও সফল এই ফরাসী। তিন বছর রিয়াল মাদ্রিদের দায়িত্বে থেকে ৩টি চ্যাম্পিয়নস লিগ সহ ৯টি শিরোপা জিতিয়েছেন এই ফরাসী তারকা।

গুঞ্জন ওঠে বিশ্বকাপ পরবর্তী ফ্রান্স দলের দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন জিদান, তাই হঠাৎ তার এই সিদ্ধান্ত। তবে শুনে অনেকের বিশ্বাস হবে না। ফ্রান্স নয়, কাতারের সাথে নাকি চুক্তির পথে সাবেক রিয়াল কোচ!

রিয়াল কোচের পদ থেকে অব্যাহতি নেওয়ার পরপরই নাগিব সাউরিস নামক এক মিশরীয় ব্যবসায়ী কাতারের সাথে জিদানের চুক্তির ব্যাপারে লিখেন, ‘টাকাই কথা বলে!’ টাকার কথাটা অবশ্যই এখানে আসছে।

কেননাবার্ষিক  ৫০  মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে জিদানকে চুক্তির প্রস্তাব দিয়েছে কাতার। এছাড়াও ১ লক্ষ ২০ হাজার ইউরো দেওয়া হবে দৈনিক ভাতা হিসেবে। সবমিলিয়ে ২০২২ বিশ্বকাপ পর্যন্ত চার বছরে জিদানের আয় হবে ১৭৬ মিলিয়ন ইউরো! আর যদি তাই হয়, তবে জিদানই হবেন জাতীয় দলের হয়ে সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া কোচ।

পরের বিশ্বকাপটি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে কাতারে। আর ওই বিশ্বকাপকে সামনে রেখেই পরিকল্পনা সাজাচ্ছে কাতার ফুটবল ফেডারেশন। বর্তমানে ফিফার  র‍্যাঙ্কিংয়ে  ১০৩ নাম্বারে অবস্থান করছে দলটি। তাই কাতার ফুটবলের কর্মকর্তারা চাচ্ছেন জিদানকে নিয়োগ দিয়ে চমক দেখাতে।দেখা যাক,শেষ পর্যন্ত জিদান কাতারের কোচ হন কিনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

sixteen − 5 =

shares